মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

সাংগঠনিক কাঠামো

পৌরসভার সাংগঠনিক কাঠামো

 

পৌরসভার সাংগঠনিক কাঠামোতে মেয়র, প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা, প্রকৌশল বিভাগ, প্রশাসনিক বিভাগ, স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা ও পরিচ্ছন্ন বিভাগ এছাড়াও পৌরসভাতে বিভিন্ন শাখার মাধ্যমে পৌরসভার জনগনকে বিভিন্ন উন্নয়নমূলক সেবা প্রদান করে আসতেছে। 

সাংগঠনিক কাঠামো


পুরসভা বা পৌরসভা বা মিউনিসিপ্যালিটি বাংলাদেশ এবং ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের শহরাঞ্চলীয় স্বায়ত্তশাসন ব্যবস্থার একটি গুরুত্বপূর্ণ একক। বাংলাদেশে পৌরসভা এবং পশ্চিমবঙ্গে পুরসভা নামটি প্রচলিত।  বাংলাদেশ মোট পৌরসভার সংখ্যা ৩২৬টি [১]এবং পশ্চিমবঙ্গে মোট পুরসভার সংখ্যা ১১৯টি।

ইতিহাস
সর্বপ্রথম পৌর প্রতিষ্ঠান গঠনের লক্ষ্যে আইন পাস হয় ১৮৪২ সালে। ১৯৩২ সালে অবিভক্ত বাংলায় প্রবর্তিত বঙ্গীয় পৌরসভা আইন বা বেঙ্গল মিউনিসিপ্যাল অ্যাক্ট অনুসারে ও সেই আইনের ১৯৮০, ১৯৮২ ও ১৯৯২ সালের সংশোধনী অনুসারে পশ্চিমবঙ্গের পুরসভাগুলি পরিচালিত হত। ১৯৯৩ সালে পশ্চিমবঙ্গের পুরসভাগুলির পরিচালনার লক্ষ্যে পশ্চিমবঙ্গ পৌর আইন বা দ্য ওয়েস্ট বেঙ্গল মিউনিসিপ্যাল অ্যাক্ট চালু হয়। ১৯৯৪ ও ১৯৯৫ সালে এই আইনের সংশোধন সাধন করা হয়। বর্তমানে পশ্চিমবঙ্গেরপুরসভাগুলি এই আইন মোতাবেক প্রতিষ্ঠিত আছে।

ঢাকা পৌরসভা গঠিত হয় ১৮৬৪ সালে। স্বাধীন বাংলাদেশে পৌরসভা অধ্যাদেশ জারি হয় ১৯৭৭ সালে। বাংলাদেশের স্থানীয় সরকার (পৌরসভা) আইন, ২০০৯ অনুসারে বাংলাদেশের পৌরসভাগুলো প্রতিষ্ঠিত ও পরিচালিত।

 

বাংলাদেশের স্থানীয় সরকার (পৌরসভা) আইন, ২০০৯ অনুসারে পৌরসভাসমূহকে ৩ শ্রেণীতে ভাগ করা হয়। এগুলো হল –

‘ক’ শ্রেণী
‘খ’ শ্রেণী
‘গ’ শ্রেণী [২]

ছবি


সংযুক্তি


সংযুক্তি (একাধিক)



Share with :
Facebook Twitter